মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ১২:৪৪ পূর্বাহ্ন Bengali Bengali English English
শিরোনাম :
ঝিনাইগাতীতে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করলেন বিভাগীয় কমিশনার গ্লোবাল টেলিভিশনের সংবাদ কর্মীদের উপর হামলার প্রতিবাদে ঝিনাইগাতীতে মানববন্ধন  ঝিনাইগাতীতে আশ্রয়ণ প্রকল্প পরিদর্শন করেন উপজেলা চেয়ারম্যান নাইম নীলফামারীতে পুলিশ সুপার কাপে চ্যাম্পিয়ন ‘পুলিশ হাসপাতাল দল। নীলফামারীতে ট্রেনে কাটা পড়ে ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রের মৃত্যু। রাজশাহীতে সাংবাদিকদের ৮ দফা দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন ঝিনাইগাতীতে বন্যার পানিতে ডুবে নিহত-২ দূর্গম চরাঞ্চলে জন শুমারীর কাজ করছেন জোনাল অফিসার মেহেদী  নীলফামারীতে ভূমি অধিগ্রহণের চেক পেলেন ১৭ব্যক্তি। নীলফামারীতে ১১ বছর পর খোকশাবাড়ি ইউপিতে ভোট উৎসব।
নোটিশ :
Wellcome to our website...
রাজশাহীতে বঙ্গবন্ধুর মূরাল নিয়ে পৌরমেয়রের কটুক্তি রাজশাহী জুড়ে ক্ষোভ-তোলপাড়।
আপডেট : মঙ্গলবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২১, ৫:৫২ অপরাহ্ণ

মোঃ মেহেদী হাসান,রাজশাহী প্রতিনিধি:-

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল বসানো নিয়ে কটুক্তি করেছেন রাজশাহীর কাটাখালী পৌর মেয়র আব্বাস আলী। তিনি এই পৌরসভায় পরপর দুইবার নৌকা প্রতীক নিয়ে জয়ী হয়েছিলেন। এছাড়া তিনি পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ও জেলা কমিটির সদস্য।

 

তিনি একটি অডিওতে বলেছেন, ‘সিটি গেট আমার অংশে। একটি ফার্মকে দিয়েছে তারা বিদেশী স্টাইলে সাজিয়ে দিবে; ফুটপাত, সাইকেল লেন টোটাল আমার অংশটা। কিন্তু একটু থেকে গেছি গেটটা নিয়ে। একটু চেঞ্জ করতে হচ্ছে যে মুর‌্যালটা দিয়েছে বঙ্গবন্ধুর সেটা ইসলামী শরীয়ত মতে সঠিক নয়। এ জন্য আমি ওটা থুব না, সব করবো তবে শেষ মাথাতে যেটা ওটা (মুর‌্যাল)।’

 

তিনি বলেন, ‘ইসলামের দৃষ্টিতে পাপ.. সে জন্য রাজশাহী সিটি গেটে বঙ্গবন্ধুর মুর‌্যাল না বসাতে দিবো না। দরকার হলে জীবন দিয়ে প্রতিহত করবো’। আব্বাস আলীর এক মিনিট ৫১ সেকেন্ডের বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। তার এমন বক্তব্যে রাজশাহীজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে। যদিও পুরো ঘটনাটি অস্বীকার করেছেন মেয়র আব্বাস।

 

মেয়র আব্বাস আলী বলেছেন, ‘আমি দেখতে পাচ্ছি আমাকে যেভাবে বুঝাইছে আমি দেখতে পাচ্ছি যে মুর‌্যালটা ঠিক হবে না দিলে; আমার পাপ হবে; তো কেন দিব দিব না। আমিতো কানা না, যেভাবে বুঝাইছে তাতে আমার মনে হয়েছে মুর‌্যালটা হলে আমার ভুল করা হবে। এ খবরটা যদি যায় তাহলে আমার রাজনীতির বারোটা বাজবে; এই মুর‌্যাল দিত চেয়ে দিছে না। তাহলে বঙ্গবন্ধুকে খুশি করতে গিয়ে আল্লাহকে নারাজ করবো নাকি। এ জন্য কিছু করার নাই। মানুষেক সন্তষ্ট করতে গিয়ে আল্লাহকে অসন্তষ্ট করা যাবে না।’

 

তবে অডিওটি তার নয় বলে দাবি করে পুরো ঘটনা অস্বীকার করেছেন মেয়র আব্বাস আলী। তিনি বলেন, ‘মুর‌্যাল করা যাবে না, মুর‌্যাল করলে পাপ হবে, এ ধরণের কথা আমার সঙ্গে কারও হয়নি। আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটুক্তি করার মতো আমার সাহস কখনও ছিলো না।’ অডিওতে যে ভয়েস শোনা যাচ্ছে তা আপনার সাথে হুবুহু মিল রয়েছে এমন কথা বলা হলে তিনি ফোন কেটে দেন। এরপর থেকে আর কল রিসিভ করেছেন না।

 

রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অনিল কুমার সরকার বলেন, পৌর মেয়র আব্বাসের বক্তব্য লোকমুখে শুনেছি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে কটুক্তি করা খুব অন্যায়। আমরা এর তদন্ত করবো। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে যদি কোন কটুক্তি করে থাকে তার বিরুদ্ধে দলীয় ও আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।#

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০