সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৯:১৯ অপরাহ্ন Bengali Bengali English English
শিরোনাম :
গোদাগাড়ীতে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে মোটরসাইকেল আরোহী নিহত মায়ের মত আপন কেহ নেই নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে কৃষকের ধান কেটে দিল কৃষক লীগের নেতাকর্মীরা ছিনতাই করার 8৮ ঘন্টার মধ্যেই অপরাধীকে ধরতে সক্ষম রাজশাহীর পুলিশ শেরপুরে জেলা পুলিশ সদস্যদের সাপ্তাহিক মাস্টার প্যারেড অনুষ্ঠিত শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে রুনা ইলেকট্রনিকের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে নানা আয়োজন শেরপুরে এসএসসি-৮৬/৮৭ ব্যাচের সমন্বয় কমিটি গঠন শেরপুর পুলিশ লাইন্সে বদলি জনিত বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত ঝিনাইগাতীতে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা বৃত্তি ও বাইসাইকেল বিতরণ ঝিনাইগাতীতে ভূমি সেবা সপ্তাহ শুরু 
নোটিশ :
Wellcome to our website...
রংপুর বদরগঞ্জ উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ(চেয়ারম্যান) নির্বাচনে একই পদে সহদর ৩ ভাই।
আপডেট : শুক্রবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০২১, ৫:০৬ অপরাহ্ণ

রংপুর জেলা প্রতিনিধি, গোলাম আজম ঃ

রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার কালুপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আপন তিন ভাই চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন। একরামুল হক, মোতালেব হোসেন ও শহিদুল হক। তাঁরা সহোদর। নিজ নিজ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা জোরালোভাবে চালিয়ে যাচ্ছেন।

 

তিন ভাইয়ের মধ্যে শহিদুল হক আনারস প্রতীকে, মোতালেব হোসেন ঘোড়া প্রতীকে এবং একরামুল হক মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন। একরামুল হক তিন ভাইয়ের মধ্যে বড়। সকলের ছোট ভাই শহিদুল হক ওই ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান।

 

স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কালুপাড়া ইউপিতে ১৯৯১-৯৫ সালে চেয়ারম্যান ছিলেন একরামুল হক (বড় ভাই)। তাঁর ছোট ভাই শহিদুল হক ২০০৩ সাল থেকে একই ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচিত চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

 

ওই ইউপির একাধিক ভোটারের সাথে কথা বলে জানা গেছে পারিবারিক দ্বন্দ্বের জেরে এবারই প্রথম একই ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন তিন সহদর ভাই। নির্বাচনী প্রচারণায় এক ভাই অপর ভাইয়ের বিরুদ্ধে বিষোদ্‌গারও করছেন। মেজো ভাই মোতালেব হোসেন গত নভেম্বরে সড়ক দুর্ঘটনায় ডান পা হারিয়েছেন। অসুস্থ অবস্থাতেই তিনি ভোটারদের কাছে গিয়ে নিজ প্রতীকে ভোট চাচ্ছেন।

এব্যাপারে জানতে চাইলে চেয়ারম্যান প্রার্থী শহিদুল হক বলেন, বড় দুই ভাই ঈর্ষান্বিত হয়ে তাঁর বিরুদ্ধে নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন। ভোটাররা সেটা বুঝতে পেরেছেন।

 

তবে মেজো ভাই মোতালেব হোসেন বলেন, ছোট ভাই শহিদুল ইসলাম চেয়ারম্যান হিসেবে ইউনিয়নে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতি করেছে। তাই ভোটারদের অনুরোধে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়ে তিনি ব্যাপক সাড়া পাচ্ছেন সকলের মূল্যবান ভোট দিয়ে বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করার অনুরোধ জানান।

 

বড় ভাই একরামুল হক বলেন, ‘আমি আগে ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছিলাম। বর্তমান চেয়ারম্যান ছোটভাই শহিদুল হকের প্রতি মানুষ ক্ষুব্ধ। আমার প্রতি ভোটারদের আস্থা রয়েছে।

 

২৬ ডিসেম্বর কালুপাড়া ইউপি নির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এতে চেয়ারম্যান পদে আরও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ইউপিতে ভোটার রয়েছেন ১৪ হাজার ৯৮৪জন।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১