সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৯:৪৯ অপরাহ্ন Bengali Bengali English English
নোটিশ :
Wellcome to our website...
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সৈনিক মানবিক যোদ্ধা নামে পরিচিত পলি আক্তার।
আপডেট : মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০২২, ৩:৪৫ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার রসুল্লাবাদ ইউনিয়নের কৃতি সন্তান অকুতোভয় সৈনিক মানবিক যোদ্ধা পলি আক্তার।

মানুষ নিজের স্বার্থ উদ্ধারের বেশি অগ্রসর, তবুও এমন কিছু মানুষ আছে, যারা অন্যকে নিয়ে ভাবেন। ঝাঁপিয়ে পড়ে তাদের সাহায্যে চলমান করোনা পরিস্থিতিতে এমন একজন মানবিক যোদ্ধা পলি আক্তার নিজের জীবনের ঝুকি নিয়ে গরীর অসহায় মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন ।
এই করোনা মহামারীতে বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় বিশেষ করে বগুড়াতে চাঁদ হয়ে ধরা দিয়েছেন,
স্বেচ্ছায় যারা মানুষের সেবা করে তারাই প্রকৃত স্বেচ্ছাসেবী, এমন একজন সফল স্বেচ্ছাসেবীর কুমিল্লা মানব কল্যাণ ফাউন্ডেশন এর উপদেষ্টা পলি আক্তার। তিনি ২০১৫ সাল থেকে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সাথে কাজ করে যাচ্ছেন। তার এই মানবিক কাজ গুলো দেখে কুমিল্লা জেলার অ্যাডভোকেট শামসুজ্জামান বলেন, একজন নারী হয়েও সে যেভাবে হতদরিদ্র অসহায় মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছে হাজারো নারীর মধ্যে একজন অন্যতম নরী হলো পলি আক্তার। তার কোন বিকল্প নেই তার এই মানব প্রেমের গুণনটিই তাকে মহামারী করোনাভাইরাস এর মধ্যে ঘরে বসে থাকতে দেয়নি বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে হত দরিদ্র অসহায় মানুষের খোঁজ নিয়ে তাদের পাশে গিয়ে দাঁড়িয়েছে।

কুমিল্লা মানব কল্যাণ ফাউন্ডেশন এর নেতৃত্বে তার চলমান কার্যক্রম শুরু হয় যা এখনো অব্যাহত রয়েছে।
বিভিন্ন সেবামূলক কাজ অসহায় মেধাবী স্টুডেন্ট দের পাশে দাঁড়ানো হতদরিদ্র অসহায় পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ, স্বেচ্ছায় রক্তদান, হত দরিদ্র অসহায় মানুষকে চিকিৎসার ব্যবস্থা, ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মেধাবী স্টুডেন্ট দের হাতে মেধা পুরস্কার তুলে দেন পলি আক্তার।

এছাড়াও মহামারী করোনা ভাইরাস এর মধ্যে কর্মহীন মানুষদের ঘরে খাবার, মাক্স বিতরণ ও মানুষের মাঝে সামাজিক সচেতনতা তৈরি করেন।

জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কেন মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন তার কাছ থেকে জানতে চাইলে পলি আক্তার বলেন,
স্বেচ্ছাসেবী কখনো ভয় পেয়ে ঘরে বসে থাকে না, সমস্যা হতে পারে জেনেও তারা অন্যের সেবায় কাজ করতে পেরে নিজেকে আনন্দিত মনে করে।
পলি আক্তার আরো বলেন, করোনার সময় কর্মহীন মানুষের ঘরে ঘরে খাবার সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া টা আমার মূল লক্ষ্য ছিল।

প্রায় ৭ বছর এই অভিজ্ঞতার সময়ে কোন প্রতিবন্ধকতা আটকাতে পারেনাই তাকে কারণ সে একজন সৎ এবং মহৎ ব্যক্তি।

স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে কাজ করতে গিয়ে করোনা পজিটিভ রোগীদেরও সাহায্য করা, আক্রান্তদের বাড়িতে খাবার পৌঁছে দেওয়া তাদের নিয়মিত খোঁজ খবর রাখা। প্রতিবেশীদের যত্নশীল হতে উদ্বুদ্ধ করেছেন । শুধু সাংগঠনিকভাবে নয় ব্যক্তিগত ভাবে কাজ করে যাচ্ছে মানবিক এই যোদ্ধা।

দেশের দুর্দিনের বগুড়া জেলার বিভিন্ন গ্রাম অঞ্চলে কর্মহীন মধ্যবিত্ত পরিবারের মাঝে চাল ডাল আলু অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যদ্রব্য প্রদান করা সহ নানাভাবে মানুষের পাশে আছেন মানবিক যোদ্ধা
পলি আক্তার।

পলি আক্তার বলেন, আমি ২০১৫ সাল থেকে এমন মহৎ কাজ করতে পেরে আনন্দিত সে আরও বলেন কোন স্বার্থের জন্য নয় বরং দেশ ও দেশের মানুষকে ভালোবাসি বলে ছোট থেকেই স্বেচ্ছাসেবী কাজ করছি।

ভবিষ্যতেও দেশের হত দরিদ্র অসহায় মানুষের জন‍্য এমন মানবিক কাজ করে যেতে চাই।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১