সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৮:১১ অপরাহ্ন Bengali Bengali English English
শিরোনাম :
গোদাগাড়ীতে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে মোটরসাইকেল আরোহী নিহত মায়ের মত আপন কেহ নেই নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে কৃষকের ধান কেটে দিল কৃষক লীগের নেতাকর্মীরা ছিনতাই করার 8৮ ঘন্টার মধ্যেই অপরাধীকে ধরতে সক্ষম রাজশাহীর পুলিশ শেরপুরে জেলা পুলিশ সদস্যদের সাপ্তাহিক মাস্টার প্যারেড অনুষ্ঠিত শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে রুনা ইলেকট্রনিকের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে নানা আয়োজন শেরপুরে এসএসসি-৮৬/৮৭ ব্যাচের সমন্বয় কমিটি গঠন শেরপুর পুলিশ লাইন্সে বদলি জনিত বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত ঝিনাইগাতীতে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা বৃত্তি ও বাইসাইকেল বিতরণ ঝিনাইগাতীতে ভূমি সেবা সপ্তাহ শুরু 
নোটিশ :
Wellcome to our website...
উপমহাদেশের সবচেয়ে উঁচু ওয়াচ টাওয়ার চরফ্যাশনে
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:২০ অপরাহ্ণ

শামছুদ্দিন খোকন,চরফ্যাশন প্রতিনিধি :

জ্যাকব টাওয়ার বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলের ভোলা দ্বীপের চরফ্যাশন শহরে অবস্থিত পর্যটকদের জন্য নির্মিত একটি ওয়াচ টাওয়ার। এ টাওয়ার থেকে চারপাশের ১০০ বর্গকিলোমিটার এলাকা পর্যন্ত প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করা যায়।এটি বাংলাদেশ ও উপমহাদেশের সবচেয়ে উঁচু ওয়াচ টাওয়ার।আইফেল টাওয়ারের আদলে নির্মিত ১৬ তলা বিশিষ্ট এই ওয়াচ টাওয়ারে প্রতিটি তলায় ৫০ জন ও পুরো টাওয়ারে ৫০০ জন দর্শক অবস্থান করতে পারবেন।

 

ভোলা জেলা শহর থেকে ৭০ কিলোমিটার দূরে বঙ্গোপসাগরের উপকূল ঘেঁষে উপজেলা শহর চরফ্যাশন কলেজ রোডে খাসমহল মসজিদের সামনে ওয়াচ টাওয়ারটি অবস্থিত

 

নির্মাণের শুরুতে এর নাম জ্যাকব টাওয়ার ছিলো না। গত ১৮ মে ২০১৭ নির্মাণাধীন টাওয়ার পরিদর্শনে এসে সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ টাওয়ারটির নির্মাণশৈলী আর নান্দনিক সৌন্দর্যে অভিভূত হয়ে তিনি এর নাম দেন ‘জ্যাকব টাওয়ার’। ভোলা-৪ আসনের সংসদ সদস্য আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকবের নামে টাওয়ারটির নামকরণ করা হয়।

 

২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে এই টাওয়ার নির্মাণের কাজ শুরু হয়। টাওয়ার নির্মাণে ব্যয় হয় প্রায় ২০ কোটি টাকা। এর উচ্চতা ২২৫ ফুট। ১ একর জমিতে টাওয়ার নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে চরফ্যাশন পৌরসভা। টাওয়ারটির নকশা করেছেন স্থপতি কামরুজ্জামান লিটন। মাটির ৭৫ ফুট নিচ থেকে ঢালাই-পাইলিং ফাউন্ডেশনের ওপর সম্পূর্ণ ইস্পাত নির্মিত এই টাওয়ার ৮ মাত্রার ভূমিকম্প সহ্য করতে পারে। ভূমির উপর থেকে টাওয়ারের ওপরে অবস্থিত গম্বুজ আকৃতির ওয়াচ পয়েন্ট পর্যন্ত চারদিকে অ্যালুমিনিয়ামের ওপর রয়েছে ৫ মিলিমিটার ব্যাসের স্বচ্ছ কাঁচ। এর চূড়ায় ওঠার জন্য সিঁড়ির পাশাপাশি রয়েছে ক্যাপসুল লিফট। টাওয়ার চূড়ায় স্থাপন করা হয়েছে উচ্চক্ষমতার বাইনোকুলার। এর সাহায্যে পর্যটকরা দূরবর্তী স্থান দেখতে পারবেন।

 

জ্যাকব টাওয়ারের শীর্ষ থেকে আশেপাশে প্রায় ১০০ বর্গকিলোমিটার এলাকা দেখা যায়। দূরের স্থান স্পষ্ট ভাবে দেখার জন্য বাইনোকুলারের ব্যবস্থা রয়েছে। এখানে থেকে দেখা যাবে সংরক্ষিত বনাঞ্চল চর কুকরি-মুকরি, তারুয়া সৈকত, স্বপ্নদ্বীপ মনপুরার চর পিয়াল, হাতিয়ার নিঝুম দ্বীপ আর বঙ্গোপসাগর।

 

এর ব্যয় ২০ কোটি টাকা (প্রায়)

স্বত্বাধিকারী ও ব্যবস্থাপনা রয়েছেন চরফ্যাশন পৌরসভা

উচ্চতা রয়েছে ২২৫ ফুট আছে লিফলেটর ব্যবস্থা

নকশা এবং নির্মাণ করেন

স্থপতি কামরুজ্জামান লিটন

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১